-->

শিশুকে গণধর্ষণের মামলার অন্যতম আসামি গ্রেপ্তার

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
শিশুকে গণধর্ষণের মামলার অন্যতম আসামি গ্রেপ্তার

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ১৪ বছর বয়সী এক শিশুকে গণধর্ষণের মামলার অন্যতম আসামি শহিদ শেখকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। সোমবার (৮ জুলাই) রাত ১১টার দিকে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সালমান নূর আলমের স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সালমান নূর আলম।

গ্রেপ্তার আসামি শহিদ শেখ গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের শালমারা গ্রামের শরিফুল শেখের ছেলে। 

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শালমারা গ্রামের জাহিদুল শেখের ছেলে মনির হোসেন, মজনু শেখের ছেলে অসীম শেখ বেঙ্গু ও শরিফুল শেখের ছেলে শহিদ শেখ নাবালিকা ওই শিশুর বাড়িতে গিয়ে সুকৌশলে শিশুটিকে স্থানীয় কাটাখালী নদীর পাশের একটি ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে যায়। এরপর এসব যুবক শিশুকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য শিশুটিকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে ধর্ষকরা। যার কারণে ভয়ে বিষয়টি চেপে যায় শিশুটি। পরবর্তীতে শিশুর শারীরিক অসুস্থতা দেখে পরিবারের সন্দেহ হয়। এ নিয়ে ১৪ এপ্রিল শিশুটিকে সোনাতলা ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টারে পরীক্ষায় ৯ সপ্তাহের গর্ভবর্তী বলে ধরা পড়ে। তখন বাবা-মায়ের চাপে শিশুটি বিস্তারিত ঘটনা খুলে বলে। এ ঘটনায় শিশুর পিতা বাদী হয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ওই যুবকদের আসামি করে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। 

এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-১৩, গাইবান্ধা ও র‍্যাব-১০, ফরিদপুর ছায়াতদন্ত আরম্ভ করে। একপর্যায়ে সোমবার (৮ জুলাই) সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে ফরিদপুরে কোতয়ালী থানাধীন আলীপুর কবরস্থানের সামনে পাকা রাস্তায় যৌথ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় ওই মামলার এজাহারনামী পলাতক ৩নং আসামি শহিদ শেখকে গ্রেপ্কার করতে সক্ষম হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামি শহিদ শেখকে গোবিন্দগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

ভোরের আকাশ/ সু

মন্তব্য

Beta version